বিদ্যুৎ বিভাগ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ জুলাই ২০১৮

নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড

বাংলাদেশ পাওয়ার সেক্টর রিফর্ম পলিসির আওতায় কোম্পানি আইন-১৯৯৪ এর বিধান মোতাবেক বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি)-এর একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে নর্থ ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড গত ২৮.০৮.২০০৭ ইং তারিখে RJSC (Registrar of Joint Stock Companies) -এ নিবন্ধিত হয়। অত্র কোম্পানি একটি রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানি। কোম্পানির শতভাগ শেয়ারের মালিক বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড। কোম্পানির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী কর্তৃপক্ষ পরিচালনা পর্ষদ । এছাড়া,কোম্পানির আওতাধীন বিদ্যুৎ কেন্দ্রসমূহের পরিচালন ও সংরক্ষণ কার্যক্রম এবং উন্নয়ন কর্মকাণ্ডসহ কোম্পানির সকল কার্যক্রম প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, নির্বাহী পরিচালক(প্রকৌশল), নির্বাহী পরিচালক (পিএন্ডডি), নির্বাহী পরিচালক(অর্থ), কোম্পানি সচিব এর সমন্বয়ে গঠিত টিম ম্যানেজমেন্ট এর উপর ন্যস্ত করা হয়েছে। সিরাজগঞ্জ ১৫০ মেঃ ওঃ পিকিং পাওয়ার প্ল্যান্ট নির্মাণ প্রকল্প, খুলনা ১৫০ মেঃ ওঃ পিকিং পাওয়ার প্ল্যান্ট নির্মাণ প্রকল্প এবং ভেড়ামারা ৪১০ মেঃ ওঃ কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্র উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে কোম্পানির প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু হয়। কোম্পানি ২০১২ সালের নভেম্বর মাসে সিরাজগঞ্জ ১৫০ মেঃ ওঃ সিম্পল সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মাধ্যমে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করে। সীমিত সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে সীমিত জনশক্তি দ্বারা উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে মাত্র ১০ বছর সময়ের মধ্যে কোম্পানির অধীনে সিরাজগঞ্জ ২২৫ মেঃওঃ কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট (১ম ইউনিট ও ২য় ইউনিট), খুলনা ২২৫ মেঃওঃ পাওয়ার প্লান্ট এবং ভেড়ামারা ৪১০ মেঃওঃ কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্র বাস্তবায়িত হয়েছে। এই চারটি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সর্বমোট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ১০৭৪ মেঃ ওঃ।

বর্তমানে কোম্পানির আওতায় ৫টি প্রকল্প চলমান রয়েছে । চলমান প্রকল্পগুলো সম্পন্ন হলে কোম্পানির মোট উৎপাদন ক্ষমতা হবে ৩৯২৮ মেঃওঃ। এছাড়া, কোম্পানির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে মোট প্রায় ৬১৩৭.৬ মেঃওঃ ক্ষমতাসম্পন্ন ৭টি প্রকল্প পরিকল্পনাধীন আছে। আশা করা যায়, এ কোম্পানির আওতায় ২০২১ সালের মধ্যে প্রায় ৭,০০০ মেঃওঃ এবং ২০৩০ সালের মধ্যে প্রায় ১০,০০০ মেঃওঃ বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব হবে।

এছাড়া ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে কোম্পানি আগামীতে মিশ্র জ্বালানি ও অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে বেশ কিছু মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে। আশা করা যায়, কোম্পানি দ্রুততম সময়ে শক্তিশালী ব্রান্ড ইমেজসহ দেশের নেতৃত্বশীল বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী সংস্থা হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করবে।

 

 বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন


Share with :

Facebook Facebook